Skip to content

সি এস খতিয়ান অনলাইনে দেখার নিয়ম

সি এস খতিয়ান জমির মালিক নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। জমি ক্রয়ের সময়ে বিভিন্ন কাগজের মাধ্যমে জমির মালিক খুঁজে বের হয় হয় তার মধ্যে অন্যতম হলো সি এস খতিয়ান। বর্তমানে অনলাইনের মাধ্যমে আপনি চাইলে জমির সি এস খতিয়ান দেখতে পারেন। তবে জমির মালিক নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে আরো কিছু প্রয়োজনীয় কাগজ আছে যেমন এস এ খতিয়ান, আর এস খতিয়ান এবং বিএস খতিয়ান। বাংলাদেশ সরকার সবার সুবিধার জন্য সিএস খতিয়ান থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের খতিয়ান যাচাই করার অনলাইন সিস্টেম চালু করেছে।

বর্তমানে আমাদের আশেপাশে প্রায় শুনতে পাই জমি বিষয়ক জামেলা। কেউ হয় জমি কিনেছেন কিন্তু পরে জানতে পারলেন সে জমির ওয়ারিশ আছে কিংবা তাকে ভুল দলিল দেওয়া হয়েছে। কিন্তু যদি আমরা সব কাগজ ভালো করে জেনে শুনে কিনতে পারি তবে আমরা প্রতারকের হাত থেকে রক্ষা পেতে পারি।

জমি কিনার আগে এবং পরে যেসব জরুরি বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে

সি এস খতিয়ান কি?

১৯৪০ সালে যে শাসনামল ছিল সেটি হলো ব্রিটিশ শাসনামল। আর সেই সময়ে জমির মালিকানা নির্ধারণ করার জন্য বিশেষ এক ধরনের খতিয়ান তৈরি করা হয়েছিল। সে সময় যেসব খতিয়ান তৈরি করা হয়েছিলসেগুলোই সিএস খতিয়ান (CS Khatian). এটি ব্রিটিশ সরকারের নিকট থেকে তৈরি হওয়া বাংলার সর্বপ্রথম জমির খতিয়ান। এর মাধ্যমে মালিক নির্ধারণ করা যেত.

সি এস খতিয়ান অনলাইন দেখার নিয়ম

আপনি যদি কোনো জমির সি এস খতিয়ান বের করতে চান তাহলে ২টি পদ্ধতি আছে –১. ম্যানুয়াল পদ্ধতি ২. অনলাইন পদ্ধতি

আপনি চাইলে সরাসরি ভূমি অফিসের যেয়ে দেখতে পারেন। যদি আপনার হাতে সময় থাকে।
অপরদিকে আপনি চাইলে অনলাইন বের করতে পারেন, আজকে আমরা সি এস খতিয়ান অনলাইনে দেখার নিয়ম সম্পর্কে জানবো। কয়েকটি স্টেপ এর মাধ্যমে আমরা দেখবো-

সি এস খতিয়ান অনলাইনে দেখার নিয়ম

১. সর্বপ্রথম আপনেকে ভূমি অফিসার ওয়েবসাইট যেতে হবে. আপনি চাইলে এখানে ক্লিক করে যেতে পারেন সহজে।
২. উপরের ৫টি অপশন থেকে সার্ভে খতিয়ান সিলেক্ট করতে হবে।
৩. তারপর আপনি আপনার বিভাগ সিলেক্ট করুন।
৪. আপনি বিভাগ সিলেক্ট করলে ডান পাশে আপনার বিভাগে থাকা সকল জেলা চলে আসবে সেখান থেকে জেলা সিলেক্ট করুন।
৫. তারপরে উপজেলা সিলেক্ট করুন।
৬. খতিয়ান ধরণ অপশন থেকে সি এস করবেন। যেহেতু আপনি সি এস খতিয়ান দেখতে চান।
৭. মৌজা – আপনার উপজিলায় থাকা সমস্ত মৌজা দেখাবে সেখান থেকে মৌজা সিলেক্ট করুন
৮. এরপর খতিয়ান তালিকা থেকে খতিয়ান নং দিন। এভাবে আপনি আপনার সি এস খতিয়ান সহজে বের করতে পারেন।

সি এস খতিয়ান কেন প্রয়োজন?

সি এস খতিয়ান মূলত যারা ব্রিটিশ সময়ে মালিক নির্ধারণ করার জন্য করেছিলেন তাদের জন্যই এটি প্রয়োজন। বর্তমানে কেউ যদি সে সকল জমি কিনতে যান তখন জমির মালিক থেকে সি এস খতিয়ান নিয়ে এটি চেক করে দেখতে হবে। নয়তো হতে পারে আপনাকে কেউ ভুল দলিল দিয়ে দিবে। আপনি প্রতারিত হতে পারেন। তাই এই বিষয় গুরুত্বের সাথে দেখা উচিত।

এভাবে আপনি সি এস খতিয়ান অনলাইনের মাধ্যমে দেখতে পারেন। যা আপনাকে জমির মালিকের ব্যাপারে সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করবে।

3 thoughts on “সি এস খতিয়ান অনলাইনে দেখার নিয়ম”

  1. Pingback: আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করার সহজ নিয়ম

  2. অনলাইনে জমির খতিয়ান অনুসন্ধান
    ই পর্চা খতিয়ান অনুসন্ধান
    নামজারি খতিয়ান অনুসন্ধান
    খতিয়ান ও দাগের তথ্য অনুসন্ধান করার সহজ নিয়ম
    আর এস খতিয়ান অনুসন্ধান করার সহজ নিয়ম
    ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পদ্ধতি
    গ্রামে বাড়ি করার জন্য ব্যাংক লোন নিন সহজে
    প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন করার নিয়ম
    প্রধানমন্ত্রী লোন বাংলাদেশ
    কৃষি ব্যাংক লোন নেওয়ার নিয়ম যেনে লোন নিন সহজেই
    ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন
    আশা এনজিও লোন পদ্ধতি
    10000 টাকার মধ্যে ভিভো মোবাইল 2023
    12 হাজার টাকার মোবাইল Vivo
    ৮ হাজার টাকার মধ্যে ভালো ফোন বাংলাদেশ
    ৪০০০ টাকার মধ্যে ভালো মোবাইল
    ১৫০০০ টাকার মধ্যে ভালো গেমিং ফোন
    সবচেয়ে সেরা কম দামে বাটন মোবাইল
    Itel বাটন মোবাইলের দাম ও ছবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *