Skip to content

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন – ২০২৩ সালে এসে বেকারত্বের হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩.৫১ শতাংশ-এ। বাংলাদেশের সব থেকে বড় সমস্যার মধ্যে এটা অন্যতম। আর সেই বেকারত্বের হার কমাতে বাংলাদেশ-এর সরকারি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক দিচ্ছে প্রবাসী লোন। আপনি যদি দেশের বাহিরে যেতে চান কিন্তু টাকার অভাবে যেতে পারছেন না তাহলে আপনার জন্য রয়েছে সুবর্ণ সুযোগ। 

আরও জানুনঃ ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন পদ্ধতি

বর্তমানে এই ব্যাংকটিতে লোনের জন্য অনলাইনে আবেদন করা যাচ্ছে। তাই এই পোস্ট-এ আমরা আপনাদের জানাব কিভাবে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন করবেন এবং এই লোন পাওয়ার জন্য আপনার আর কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন হবে, আপনার কি কি যোগ্যতা থাকলে ঋণ পাবেন, কত দিনের জন্য লোন পাবেন, সর্বোচ্ছ কত টাকা লোন দেওয়া হবে, এই লোনের জন্য কত % সুদ দিতে হবে। 

আরও জানুনঃ গ্রামে বাড়ি করার জন্য ব্যাংক লোন

সকল কিছু জানতে পারবেন এই পোস্ট-এ। গুরুত্ব সহকারে মাত্র ২ মিনিট সময় নিয়ে পড়ুন তাহলেই সব জানতে পারবেন। আমরা অযতা কথা বলে আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট করবনা।

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন | সত্য নয়?

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক-এ অনলাইনে আবেদন করা যায় এই কথাটা পুরপুরি সত্য নয়। এর কারণ হচ্ছে আপনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক-এ লোনের জন্য আবেদন করতে চাইলে ব্যাংক-এ গিয়েই আবেদন করতে হবে। 

আরও পড়ুনঃ পূবালী ব্যাংক লোন সমূহ | পার্সোনাল লোন | হোম লোন

তবে আপনি অনলাইন থেকে তাদের আবেদন ফ্রম ডাউনলোড করতে পারবেন যেটা কম্পিউটার দিয়ে প্রিন্ট করে আপনি নিজেই ফিল-আপ করতে পারবেন ঘড়ে বসে। মূলত এটাকেই মানুষ একটু বাড়িয়ে বলে যে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন করা যায়। এটা মিথ্যা এবং গুঁজব ব্যাতিত আর কিছু নয়।

আরও পড়ুনঃ কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নেওয়ার নিয়ম

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন আবেদন সঠিক পদ্ধতি

এখন চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে সঠিক পদ্ধতি অবলম্বন করে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক-এ ঋণের জন্য আবেদন করা যায়।

আপনি চাইলে অনলাইন থেকে তাদের আবেদন ফ্রম ডাউনলোড করে প্রবাসী লোনের জন্য আপনার কাগজপত্রের মাধ্যমে ঘড়ে বসেই ফ্রম ফিন-আপ করে ব্যাংক-এ নিয়ে যেতে পারেন অথবা ব্যাংক-এ গিয়ে আবেদন করতে পারেন দুটি ক্ষেত্রে আপনার কিছু কাগজপত্র প্রয়োজন হবে। চলুন দেখে নেওয়া যাক প্রবাসী লোনের জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে। 

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন প্রয়োজনিয় কাগজপত্র

সকল লোনের জন্যই কাগজপত্র প্রয়োজন হয় এটার ক্ষেত্রেও বেতিক্রম নয়। 

কাগজপত্র গুলো নিম্নে লিখা হয়েছেঃ

  • সর্ব প্রথমেই লাগবে আপনার ভিসার ফটোকপি। ভিসা উঠার আগে আবেদন করা যাবেনা।
  • আপনার নতুন তুলা ৪ (চার) কপি ফটো। চেহারা এবং চবির সাতে মিল থাকতে হবে।
  • আপনার ভোতার আইডি কার্ডের ফটোকপি, ভোতার কার্ড না থাকলে জন্ম নিবন্দন ফটোকপি।
  • পাসপোর্ট-এর প্রথম দুই পৃষ্টার ফটোকপি।
  • চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট অথবা নাগরিকত্ব সনদপত্র।
  • বিএমএটি স্মার্ট কার্ড (বহির্গমন ছাড়পত্র) এবং প্রশিক্ষন সনদপত্রের ফটোকপি।

উপরে আলোচনা করা এই কাগজপত্র গুলো লাগবে। তবে এর বাহিরে আরও দু-একটি কাগজ লাগতে পারে।

প্রবাসী লোন পাওয়ার জন্য কি কি যোগ্যতা থাকতে হবে

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে এই লোন পাওয়ার জন্য আপনার এই যোগ্যতা গুলো প্রয়োজন হবেঃ 

১. আপনার বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে।

২. বাংলাদেশ-এর নাগরিক হতে হবে।

৩. আপনি কাজের জন্য বিদেশ যেতে চাইলে, তাহলে লোন পাবেন। অবৈধ ভাবে কোন দেশে যেতে চাইলে লোন পাবেন না। ব্রমন কিংবা পরাশোনার জন্য এই লোন দেওয়া হবেনা।

৪. প্রবাসী লোন পাওয়ার জন্য আপনার একজন নিকট আত্মীয়কে জামিনদার রাখতে হবে। আপনি লোন নিয়ে বিদেশে যাওয়ার পর আপনার জামিনদার ব্যাংকের সাতে লেনদেন করবেন। আপনি যাকে জামিনদার রাখবেন তাকে অবশ্যই আর্থিকভাবে সচ্ছল হতে। সরকারি চাকরিজীবী কিংবা ব্যবসায়ী হলে খুব ভালো হবে।

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম | সুদের হার কত? কত টাকা লোন নেওয়া যায়? 

  • প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ১ লক্ষ্য থেকে সর্বোচ্ছ ৩ লক্ষ্য টাকা প্রবাসী অভিবাসন লোন দিয়ে থাকে। 
  • অভিবাসন লোন সর্বোচ্ছ ২ বছরের জন্য দেওয়া হয়।
  • প্রবাসী অভিবাসন লোন ১০ অথবা ২২ টি কিস্তির মাধ্যমে শেষ করতে হয়। ১ বছর মেয়াদি হলে ১০টি কিস্তি এবং ২ বছর মেয়াদি হলে ২২টি  কিস্তির মাধ্যমে ঋণ পরিসুদ করতে হবে। ঋণ নেওয়ার প্রথম ২ মাস কিস্তি দিতে হবেনা, তৃতীয় মাস থেকে শুরু করে প্রতি মাস কিস্তি দিতে হবে। শুধু মাত্র সিঙ্গাপুরের ক্ষেত্রে ১০ টি কিস্তিতে এক বছরের মধ্যে এই ঋণ পরিশোধ করতে হয়। 
  • প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক প্রবাসী অভিবাসন লোনের জন্য সুদ দিতে হয় ৯% শতাংশ

উপসংহার 

আমরা এই পোস্ট-এ প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন করার সত্যতা তুলে ধরেছি এবং সঠিক নিয়মে অভিবাসন ঋণের জন্য আবেদন করার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। 

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক তাদের প্রবাসী লোন/অভিবাসন লোনের নিয়ম প্রতিনিয়ত আপডেট করে থাকে। তাই যদি আমাদের এই পোস্ট-এর কোন লেখা যদি আপনার ঋণ আবেদন করার সময় না মিলে তাহলে আমাদের কমেন্ট করে জানানোর জন্য অনুরোধ করছি।

11 thoughts on “প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন অনলাইন আবেদন”

  1. মোঃ মহিউদ্দিন

    আমি প্রবাসের লোক নিতে চাই এখন কিভাবে নিতে পারব দয়া করে জানাবেন আমার সবকিছু কমপ্লিট হয়ে আছে এখন টাকার জন্য চাইতে পারতেছি না।।

  2. Amr Sob kichu okkk
    Akh sudhu taka lagby 3 lackh…. Amr Manikganj Branch…. Thana : Shibalaya….
    Ami 2 – 1 er Moddy Coly Asbo Sokol Doccomants neay … but onader phn decci Pick kory na 🤨

  3. আমি আমার জন্য গেছি আর আমারে বলছে ভিন্ন ধরনের আমার কাগজপত্র লাগবে একজন সরকারি চাকরিজীবি তিনজন ব্যবসায়ী লাগবে আমার এগুলো না থাকলে আমি যে টাকা পামু না আমি এখন টাকার জন্য বিদেশে যাইতে পারছি না আপনারা যদি একটু হেল্প করতেন সহযোগিতা করতে এটা নিয়ে তারা বলে ব্যবসায়ীদের ব্যাংকের চেক লাগবে ৬ মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট লাগবে যারা গরীব তারা এগুলা কই পাবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *